টপ নিউজ লাইফস্টাইল

বিমান ভাড়া করে বিদেশে পাড়ি দিচ্ছেন ভিআইপিরা

করোনা মহামারির মধ্যে ফ্ল্যাইট চলাচল বন্ধ থাকায় বিমান ভাড়া করে বিদেশে পাড়ি দিচ্ছেন দেশের ভিআইপিরা। গেল কয়েকদিন ধরে দেশের বিশিষ্ট কয়েকজন ব্যবসায়ী, শিল্পপতি, রাজনীতিক বিমান ভাড়া করে দেশ ত্যাগ করছেন। স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়েই অনেকে চলে যাচ্ছেন দেশের বাইরে।

এ তালিকায় রয়েছেন বেক্সিমকো গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সোহেল এফ রহমান, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খান, সিকদার গ্রুপের এমডি রন হক সিকদার ও তার ভাই দিপু হক সিকদার। এছাড়া দেশের আরো কয়েকজন শীর্ষ ব্যবসায়ী বিদেশে যাওয়ার আবেদন জানিয়েছেন।

বিদেশে পাড়ি দেয়া ভিআইপিদের কেউ চিকিৎসার জন্য, কেউবা দেশের বাইরে থাকা আত্মীয়স্বজনদের দেখতে যাচ্ছেন বলে উল্লেখ করেছেন। তবে ফ্লাইট বন্ধ থাকা অবস্থায় হঠাৎ করেই বিমানভাড়া করে বিদেশে পাড়ি দেয়া নিয়ে নানা কৌতুহল সৃষ্টি হয়েছে।

করোনা পরিস্থিতিতে আরোপিত বিধিনিষেধের মধ্যেই গত ২৫ মে সিকদার গ্রুপের মালিকানাধীন একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ব্যাংককে পাড়ি দেন সিকদার গ্রুপের এমডি রন হক সিকদার ও তার ভাই দিপু হক সিকদার। তাদের বিরুদ্ধে ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়ার ইস্যুতে দুই শীর্ষ ব্যাংক কর্মকর্তাকে গুলি করার হুমকি ও নির্যাতনের অভিযোগ রয়েছে। গত ১৯ মে এক্সিম ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ওই দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা করে।

Advertisements

সিকদার গ্রুপের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, দুই ভাইকে বহনকারী এয়ার অ্যাম্বুলেন্সটি সিকদার গ্রুপের সিস্টার কনসার্ন আরঅ্যান্ডআর অ্যাভিয়েশন লিমিটেডের। বলা হচ্ছে, দুই ভাই ‘মুমূর্ষু রোগী’ হিসেবে ব্যাংকক গেছেন। তবে মামলা দায়েরের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে কীভাবে তারা বিদেশে চলে গেলেন, এ ব্যাপারে কেউ কোনো সদুত্তর দিতে পারছেন না।

এদিকে গত ২৮ মে স্ত্রী নাসরিন খানকে নিয়ে ভাড়া করা বিমানে যুক্তরাজ্যের উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খান। ভাড়া করা সেই বিমানে যাত্রী হিসেবে শুধুমাত্র তারা দুজনই ছিলেন। করোনা মহামারির মধ্যে হঠাৎ করেই তাদের দেশত্যাগের বিষয়ে এম মোরশেদ খানের ব্যক্তিগত সহকারী সমীর জানিয়েছেন, বার্ধক্যজনিত নানা ধরনের অসুস্থতা রয়েছে তার। চেকআপ করাতেই তিনি যুক্তরাজ্য গেছেন।

পরদিন ২৯ মে বিমান ভাড়া করে স্ত্রীকে নিয়ে যুক্তরাজ্যে চলে গেছেন বেক্সিমকো গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সোহেল এফ রহমান। তিনি বেক্সিমকো গ্রুপের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমানের বড় ভাই। সালমান এফ রহমান ঢাকা-১ আসনের আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা। এছাড়াও সালমান ২৪ ঘণ্টা সংবাদ-ভিত্তিক চ্যানেল ‘ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন’ এর চেয়ারম্যান।

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোরশেদ খান সম্পর্কে সালমান এফ রহমানের বেয়াই। তার ছেলে আহমেদ সায়ান ফজলুর রহমানের সঙ্গে মোরশেদ খানের মেয়ের বিয়ে হয়েছে। পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সোহেল এফ রহমানের মেয়ে লন্ডনে থাকেন। তিনি অন্তঃসত্ত্বা। করোনা সঙ্কটে একমাত্র মেয়ের পাশে থাকতেই সোহেল এফ রহমান এবং তার স্ত্রী বিমান ভাড়া করে রওনা হয়েছেন।

সূত্রমতে, দেশের আরো কয়েকজন শীর্ষ পর্যায়ের ব্যবসায়ী ও শিল্পপতি দেশের বাইরে যাওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছেন। করোনা মহামারির মধ্যেই বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে ভিআইপিদের এভাবে দেশত্যাগের বিষয়টা নিয়ে আলোচনা হচ্ছে।

উৎসঃ দৈনিক ভোরের কাগজ

Advertisements

Drop your comments:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Pin It on Pinterest